Archive for the ‘বাড্ডে ছড়া’ Category

গুরু দক্ষিনা
ফেব্রুয়ারি 27, 2010

সেদিন আমি রাস্তায় ঠিক সাড়ে পাঁচটায়
হেটে হেটে উত্তরা পার্কে
ছিলনাতো সাথে কেউ হাত রেখে হাতে কেউ
রবেইবা সাথে বল, আর কে?

লাগে বড় হাঁসফাঁস, শুনে যত ফিসফাস
চারপাশ থেকে যা যা আসছে
রমণীর হাস্য , সাথে মধু ভাষ্য
ইস! আরো কত কিছু ভাসছে !

চারপাশ থেকে সব, এত কিছু দেখে সব
ফাঁকা বুকে লাগে বড় কষ্ট
দ্রুত নি:শ্বাস পড়ে, সুদীর্ঘ শ্বাস পড়ে
মাথাডাই হয় পুরা নষ্ট।

দেখিয়া ও শুনিয়া, এই দীন দুনিয়ার
প্রতি ভাব ভালবাসা জাগেনা
বৌ কিবা শ্যালিকা, স্কুল ড্রেসে বালিকা
কোনটাই মন্দ তো লাগেনা!

তারপরও আসেনা, কেউ ভালোবাসেনা
হেসে হেসে কেউ কিছু কহেনা
ধুগোধুর কষ্ট, বুঝি অামি পষ্ট
ক্যান তার দেরি আর সহেনা।

ভেবে ভাবি আহারে, দয়াময় তাহারে
দাও তুমি শালী আজ জুটিয়ে
নাই আমি চাখলাম একা একা থাকলাম
গুরু যেন প্রেম করে চুটিয়ে।

সাডেনলি বাম পাশে, ঠিক মোর কানপাশে
ঝরে যেন সুর ঝরা বৃষ্টি
কন্ঠটা জাদুমাখা,বড় খাঁটি মধু মাখা
চেহারাটা কত জানি মিস্টি!!

এই ভেবে তাকিয়ে,ঘাড় টাকে বাকিয়ে
দেখি আমি সেই মধু বালিকা
চেনা কি সে আগে? তবু অচেনাও লাগে
তবে কি সে চেনা বধু? শ্যালিকা?

হঠাৎই সে হেসে ফেলে বলে শোন, এই ছেলে
হাতখানা গুটিয়ে সে আঁচলে
তুমি কি হে সেই ছেলে, খাতা আর বই ফেলে
আজকাল লিখে নেটে, সচলে?

শুনে আমি hii দেই,ঘাড় নেড়ে সায় দেই
ইয়ে, মানে ..আছি ফাও প্যাচালে
এই কথা শুনে সেতো, খুশি বড় হয়েছেতো
বলে, আহ! বড় বাঁচা বাঁচালে!

বলে- “জানো সুমধুর কন্ঠের ধুগোধুর
সামনেই বার্থডেটা আসছে?”
বলি- জানি আমি সেটা,(কিন্তু হে কে এটা?)
তবে কি সে গুরু প্রেমে ভাসছে?

এর পরে বলে মেয়ে-” গোধুলীকে এনিওয়ে
বলে দিও হ্যাপি হ্যাপি বার্থডে,
দুইদিন কোন কাজ করিনিতো আমি, আজ
আমাদের ঝগড়ার থার্ড ডে।

এইটুকু বলে সেই,ফাটাফাটি মেয়ে যেই
যায় চলে bye বলে, আহারে!
হঠাৎই পেছন থেকে, কোমরে নাচন দেখে
ইউরেকা! চিনে ফেলি তাহারে!!

গুরু, এই কয়দিন রাগ করে তিনদিন
ভাবি ছাড়া আর কাকে খুঁজছেন?
মিলা ভাবি হেসে হেসে, আপনাকে ভালবেসে
হ্যাপি বাড্ডে দিসে, বুঝছেন?

ধূসর গোধুলি – র জন্মদিন উপলক্ষ্যে লেখা

Advertisements
%d bloggers like this: